Header Ads

পৃথিবীর সবচেয়ে বড় ঝুলন্ত সেতুর গল্প

পৃথিবীর সবচেয়ে বড় ঝুলন্ত সেতুটি জাপানে অবস্থিতএটির নাম আকাশি কাউকিওএটি আবার পার্ল ব্রিজ নামেও পরিচিতজাপানের কোবে শহর এবং আওয়াজি দ্বীপকে সংযুক্ত করেছে এই বৃহৎ সেতুটিসেতুটি যখন নির্মাণ করা হয় তার আগে এই দীর্ঘ পথ ফেরিতে পাড়ি দিতে হতোএটি ছিল খুবই সময় সাপেক্ষ এবং বিপদসঙ্কুল১৯৫৫ সালে পারাপারের সময় ঝড়ে দুটি ফেরি ডুবে নিহত হয় ১৬৮টি শিশু এবং আহত হয় বহু সংখ্যক মানুষ

এই হতাহতের ঘটনায় জনমনে ব্যপক ক্ষোভের সঞ্চার করে এবং জোরালো দাবী ওঠে এই স্থানে একটি সেতু নির্মাণেরএকপ্রকার বাধ্য হয়ে জাপান সরকার এখানে একটি সেতু নির্মাণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেনঅনেক পরিকল্পনার পর ১৯৮৮ সালে এই সেতু নির্মাণের কাজ শুরু হয় এবং দীর্ঘ দশ বছর পর ১৯৯৮ সালে সেতুটির নির্মাণ কাজ সমাপ্ত হয়১৯৯৮ সালের ০৫ এপ্রিল সেতুটি আনুষ্ঠানিক ভাবে জনগনের জন্য উন্মুক্ত করা হয়

সেতুটির দৈর্ঘ্য ৩৯১১ মিটার বা ১২৮৩১ ফুট এবং উচ্চতা ২৮২.৮ মিটার বা ৯২৮ ফুটসেতুটিতে আছে মোট ৩টি স্প্যানসবচেয়ে j¤^v স্প্যানটি ১৯৯১ মিটার বা ৬৫৩২ ফুটএটাতে আছে ৬ লেন বিশিষ্ঠ সড়কএটি ঘন্টায় ২৮৬ কিলোমিটার বেগে আসা ঝড়ো হাওয়া এবং রিখটার ষ্কেলে ৮.৫ মাত্রার ভুমিকম্পে টিকে থাকতে সক্ষমএর প্রধান দুটি সাপোর্টিং টাওয়ার সমুদ্রতল থেকে ২৯৮ মিটার উচু। 

এই দীর্ঘ ঝুলন্ত সেতুটি নির্মাণে মোট ব্যয় হয় ৫ বিলিয়ন ডলারসেতুটি রক্ষনাবেক্ষণ করে হোনসু সিকোকু ব্রিজ কতৃপক্ষযাতায়াতের সুবিধা ছাড়াও বর্তমানে সেতুটি পর্যটকদের জন্য একটি আকর্ষণীয় স্থানে পরিণত হয়েছেপ্রতি বছর হাজার হাজার পর্যটক এই সেতুটি দর্শন করে থাকে

কোন মন্তব্য নেই

Blogger দ্বারা পরিচালিত.