Header Ads

প্রাণীর মতো খাঁচায় যেখানে মানুষের বসবাস

সৃষ্টির সেরা জীব হিসাবে সকল মানুষের মৌলিক চাহিদা সমূহ সমান হওয়া উচিতকিন্তু পৃথিবীতে মানুষ মানুষে বড়ই ভেদাভেদকেউ বাস করে অট্টালিকায় আবার কেউ বাস করে গাছ তলায়গাছ তলায় বা গাছে মানুষ বসবাস করে এ নিশ্চয়ই আপনারা শুনেছেনকিন্তু মানুষ খাঁচায় বাস করে এমন কখনও কি শুনেছেন? আমরা জানি খাঁচায় বাস করে বাঘ, ভাল্লুক বা পাখি। তাই বলে খাঁচায় মানুষের বসবাস! কিভাবে সম্ভব? সবই সম্ভব আমাদের এই মনূষ্য জগতে।

বর্তমান বিশ্বের একটি উন্নত রাষ্ট্র হচ্ছে হংকংআর মানুষ খাঁচায় বাস করার এই বিচিত্র ঘটনাটি ঘটছে এই হংকংয়েএখানে মানুষ পোষা প্রাণীদের মতোই খাঁচায় বসবাস করেএকটির উপর আরেকটি এভাবে মেঝে থেকে ছাদ পর্যন্ত সাজানো খাঁচা গুলোয় বসবাস করে প্রায় চার লাখ মানুষযার মধ্যে নারী ও শিশুরাও রয়েছেএই খাঁচা বাড়ীতে মূলত হংকংয়ের হতদরিদ্র ও নিঃস্ব যাদের বাড়ীঘর সহায় m¤^j কিছুই নাই সেই সকল মানুষজন বসবাস করেবাসস্থানহীন মানুষদের আবাসন ব্যাবস্থা হিসাবে সমগ্র হংকংয়ে গড়ে উঠেছে এই খাঁচা বাড়ীএই খাঁচা ফ্লাট তৈরিতে প্রথমে একটি বাসা ভাড়া নেয়া হয়। 

মূলত ga¨¯^Z¡‡fvMxiv প্রথমে বাসাটি ভাড়া নিয়ে থাকেএরপর বাসাটির সমগ্র কক্ষগুলিতে কাঠ ও তারের জালি দিয়ে তৈরি করা হয় প্রায় ৬২৫ বর্গফুটের এক একটি খাঁচাএকজন পূর্ণবয়স্ক মানুষ তাতে পা j¤^v করে শুতে পারলেও এর ভিতরে দাড়াতে পারে নাখাঁচায় ঢুকেই শুয়ে পড়তে হয়একটি ঘরে খাঁচার উপর খাঁচা দিয়ে তৈরি করা হয় খাঁচার ফ্লাটএকটি কক্ষে এরকম অনেকগুলি খাঁচার তাক এবং সারি থাকেসাধারনত একটি কক্ষে ১৮-২০টি খাঁচার তাক স্থাপন করা হয় ফলে একটি কক্ষে বসবাস করতে হয় ১৮-২০ জন মানুষকে এবং তাদের জন্য থাকে মাত্র একটি বাথরুম। 

ঘরের সবচেয়ে উপরের তাকে যিনি বসবাস করেন তার ভোগ করতে হয় চরম কষ্টঘরমের দিনে ছাদ উত্তপ্ত হয়ে তার শরীরের পানিও শুকিয়ে যেতে থাকেআবার শীতের দিনে কনকনে শীতে হাড় কাঁপার জোগাড় হয়নারী, পুরুষ ও শিশুদের একই খাঁচায় বসবাস করতে হয়এগুলোয় থাকে না কোন নিরাপত্তা বা কোন প্রকার গোপনীয়তা

প্রাকৃতিক দূযোর্গ বা অর্থনৈতিক কারণে ক্ষতিগ্রস্ত লোকজনই বাধ্য হয়ে এমন স্থানে দিনের পর দিন বসবাস করতেঅনেকে আছেন যাদের পুরো জীবনটাই কাটিয়ে দিচ্ছেন এই খাঁচার ভিতরেরাষ্ট্রের পক্ষ থেকেও এই অমানবিক বিষয়টার প্রতি কোন খেয়াল করা হচ্ছে নাতবে বর্তমানে মানবাধিকার সংস্থাগুলো এই বিষয়ে সোচ্চার হয়ে উঠেছে

কোন মন্তব্য নেই

Blogger দ্বারা পরিচালিত.