Header Ads

দেশে দেশে বৈচিত্র্যময় নানান শেষকৃত্য অনুষ্ঠান

আমাদের এই পৃথিবী বড়ই বৈচিত্রময়। এখানে বাস করে কয়েকশ কোটি মানুষ এবং তাদের একত্রিত করে রেখেছে কিছু দেশ বা জাতি গোষ্ঠী। এই পৃথিবীতে আমরা এসেছি কয়েক বছরের জন্য তারপর আবার আমাদের এই পৃথিবী ছেড়ে চলে যেতে হবে। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে চলে যাওয়ার রীতি কেমন হবে? হ্যা, আমাদের এই পৃথিবীতে দেশ, জাতি ও সমাজ ভেদে মানুষের শেষকৃত্যের রয়েছে নানান নিয়ম। কারো নিয়ম স্বাভাবিক আবার কারো নিয়ম বৈচিত্রময়।

নেপাল ও ভুটান রাজ্য সংলগ্ন তিব্বত সীমান্ত এলাকায় বাস করে এক অদ্ভুত আদিবাসীযার নাম সোরপাতাদের সমাজে কারো মৃত্যু ঘটলে এরা এক ধরনের মন্ত্র পাঠ করেএতে মৃতদেহের ভেতর থেকে আত্না মাথা দিয়ে বেরিয়ে যায় বলে তাদের বিশ্বাসএরপর লাশটিকে বসানোর মতো করে বেঁধে রেখে তার সামনে বাতি জ্বালানো হয়সেই বাতির আলোয় লাশের চারদিকে বসে সবাই খাওয়া-দাওয়া করে পরে লাশটিকে আগুনে পুড়িয়ে ফেলা হয়
আফ্রিকার ফেন্টাস গোত্রের কারো মৃত্যু হলে নাচ-গান এবং পান উৎসব শুরু হয়গোত্রের লোকজন মৃত ব্যক্তির ঘরের চারদিকে বিচিত্রভঙ্গিতে নাচ-গান জুড়ে দেয় সেইসঙ্গে মদ্যপান ও হুঁকো টানার ধুম পড়ে যায়নাচগানকারীরা ক্লান্ত হয়ে পড়লে তাদের পেটপুরে কুকুরের মাংস খাওয়ানো হয়

ল্যাটিন আমেরিকার প্যারাগুয়েতে 'আদ্দেগালু' উপজাতীয়দের কেউ মারা গেলে তার আত্নীয় স্বজনরা লাশটি কেটে রান্না করে খায়হাড়গুলো জমা করে কিছুদিন ফেলে রাখে, তারপর একদিন সেগুলো পুড়িয়ে তার ছাইগুলো সযত্নে রেখে দেয়এরকম করলে প্রেতাত্না কোনো ক্ষতি করতে পারে না বলে তাদের বিশ্বাস

পাপুয়া নিউগিনির দু'টি গোত্র 'ভিটাইয়া' 'বেলালু'-এর লোকজনের মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া-বিবাদ লেগে থাকেএক গোত্রে অন্য গোত্রের কাউকে খুন করতে পারলে হত্যাকারী গোত্রের লোকজন আনন্দ-উৎসবে মেতে ওঠেপুরুষরা পাখির পালক মাথায় দিয়ে এবং মেয়েরা মাথায় বনফুল গুঁজে নাচ-গান শুরু করেঅন্যদিকে মৃতের গোত্রের লোকজন নানা ধরনের উপহার সামগ্রী লাশের মাথার চারপাশে জমিয়ে রাখে 

এক ব্যক্তি একটি তীরের মাথায় এক গোছা ঘাস বেঁধে সেটা শূন্যে নিক্ষেপ করে পরে লাশটিকে পুড়িয়ে ফেলা হয় নিউ মেক্সিকোর 'পিলে বেলু' গোত্রের কারো মৃত্যু হলে প্রথমে মদপানের ব্যবস্থা করা হয় তারপর একজন জ্যোতিষী মৃতের মাথা থেকে এক গোছা চুল কেটে নিয়ে কবর খুঁড়তে যায়মৃত ব্যক্তির ঘর থেকে কবর পর্যন্ত খাবার ভর্তি থালা পেতে দেয়া হয় সবাই একসঙ্গে খাওয়া শেষে জ্যোতিষী মৃত ব্যক্তির ব্যবহৃত জিনিসপত্র গ্রামের বাইরে নিয়ে ফেলে আসেতারপর মৃতের ঘরে জ্যোতিষী 'ক্রস' চিহ্ন এঁকে দেয়এতে মৃতের আত্না ক্ষতিকর প্রভাব নিয়ে ঘরে ঢুকতে পারে না বলে তাদের বিশ্বাস এরপর মৃতদেহটিকে সমাহিত করা হয়

দক্ষিণ আফ্রিকায় 'লুথ' নামে একটি গোত্র আছেএ গোত্রের কেউ মারা গেলে প্রথমে তার নাড়ি ভুঁড়ি বের করে সবাই স্যুপ রান্না করে খায়এরপর মৃতদেহটি পাহাড়ের ওপর কিংবা সুবিধাজনক জায়গায় রেখে তা না শুকানো পর্যন্ত পালা করে পাহারা দেয়লাশটি শুকিয়ে অনেকটা শুঁটকির মতো হয়ে গেলে সেটি কেটে কেটে রান্না করে খাওয়া হয়

কোন মন্তব্য নেই

Blogger দ্বারা পরিচালিত.