Header Ads

মাদাম তুসোর মোমের যাদুঘরের রহস্য এবং ইতিহাস

পৃথিবীর শুরু থেকে আজ পর্যন্ত যত ইতিহাস জমা হচ্ছে তারই প্রতিচ্ছবি হচ্ছে যাদুঘরপৃথিবীর প্রায় সকল দেশে যাদুঘর আছেযার মধ্যে অনেকগুলি আছে বিখ্যাত যাদুঘরএই সকল বিখ্যাত যাদুঘরের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে মাদাম তুসোর মোমের যাদুঘর। বিখ্যাত যাদুঘরের কথা বলতে গেলে এই যাদুঘরের কথা প্রথমে আসেযুক্তরাজ্যের লন্ডনে প্রথম তৈরি করা হয় এই বিখ্যাত যাদুঘরটিঅবশ্য এটি যুক্তরাস্ট্রের নিউওয়ার্ক শহরের নামেও পরিচিত।

এই যাদুঘরে পৃথিবীর বিভিন্ন খ্যাতিমানদের মোমের মূর্তি বানিয়ে রাখা হয় সে জন্য এই যাদুঘরকে মোমের যাদুঘর বলা হয় এই যাদুঘরটি প্রথমে প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন বিখ্যাত ভাস্কর ম্যারি তুসো। যিনি মাদাম তুসো নামে পরিচিত। মাদাম তুসো জন্ম গ্রহণ করেন ফ্রান্সে ১৭৬১ সালে এবং মৃত্যূবরণ করেন ১৮৫০ সালে ঘুমের মধ্যে। ফরাসি বিপ্লব তথা ১৮৩৫ সালের দিকে তিনি লন্ডনে স্থায়ীভাবে আগমণ করেন এবং সেখানের বকর স্ট্রিটে একটি যাদুঘর নিমার্ণ করেন এবং সংগ্রহের সূচনা করেন। সেই সময় কাউকে মৃত্যূদন্ড দেয়া হলে তার কাটা মাথাটিকে দিয়ে মোমের প্রতিকৃতি তৈরি করতেন তুসোতারপর এই প্রতিকৃতিটিকে সেখানে স্থাপন করতেন। 
তুসোর নিজের প্রতিকৃতি

এই যাদুঘরের সবচেয়ে বিখ্যাত নমুনা গুলোর মধ্যে রয়েছে প্রথম ফরাসি রাজার কাটা মাথার প্রতিকৃতি, তৃতীয় জর্জ এবং বেঞ্চামিন ফ্রান্কলিন এর প্রতিমূর্তি। ১৮৪২ সালে তিনি তার নিজের একটি প্রতিকৃতি তৈরি করেন যা বর্তমানে যাদুঘরের ভিতরে প্রদর্শনীতে রাখা আছে। ১৮৮৩ সালে বকর স্ট্রিটে জায়গা সংকুলান না হলে ম্যারিলেবেন সড়কে একটি বিল্ডিংয়ে এটির কাজ শুরু করা হয়। নতুন ভবনে যাদুঘরটির উদ্বোধন করা হয় ১৪ জুলাই। ১৯২৫ সালে এই যাদুঘরে প্রায় ৪০০টি ভাস্কর্য স্থাপন করা হয়েছিল। 

পরে আবার যাদুঘরের স্থানের সংকুলান না হওয়ায় বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে যাদুঘরটি সম্প্রসারনের সীদ্ধান্ত হয়। ২০১০ সাল পর্যন্ত যাদুঘরটির আরো অনেক শাখা বিভিন্ন শহরে স্থাপন করা হয়েছে। যেগুলো হচ্ছে, আমস্টারডাম, ব্যাংকক, বার্লিন, ব্লাকপোল, দুবাই হামবুর্গ, হলিউড, হংকং, হট স্প্রিংস, লাসভেগাস, ম্যাচেস্টার, মস্কো, নিউওয়ার্ক, সাংহাই, ভিয়েনা এবং ওয়াশিংটন ডিসিতে। এই  যাদুঘরগুলোতে পৃথিবীর বিভিন্ন খ্যাতিমান নারী-পুরুষের হাজার হাজার প্রতিকৃতি মোম দ্বারা তৈরী করে প্রদর্শনীতে রাখা হয়েছে। 

ঐশরিয়ার প্রতিকৃতির পাশে ঐশরিয়া
ঐতিহাসিক বিশিষ্ঠ ব্যক্তি, রাজকীয় ব্যক্তি, সিনেমার ও খেলাধুলার তারকারা এবং বিখ্যাত হত্যাকারীদের প্রতিকৃতি এই যাদুঘরে স্থাপন করা হয়েছে। রানী এলিজাবেথ, মহত্না গান্ধী, আব্রাহাম লিংকন, নেলসন ম্যান্ডেলা, এডলফ হিটলার, শচিন টেন্ডুলকার, ঐশরিয়া রায়, মারলন ব্রান্ডো সহ অসংখ্য বিশিষ্ঠ ব্যক্তির প্রতিমৃর্তি আছে এই যাদুঘরে।

প্রতিবছর লক্ষ লক্ষ দর্শনার্থী এই যাদুঘর প্রদর্শন করতে আসেনআবার জীবিত অনেক বিখ্যাত ব্যক্তি এখানে বেড়াতে এসে তার নিজের প্রতিকৃতির পাশে দাড়িয়ে ছবি তোলেন

1 টি মন্তব্য:

Blogger দ্বারা পরিচালিত.