Header Ads

মেয়েতে মেয়েতে বিয়ে প্রথার বিচিত্র এক দেশের গল্প

বিয়ে, নারী-পুরুষের সামাজিক বন্ধন। আমরা জানি বিয়ে প্রথাটি সেই পৃথিবী সৃষ্টির সূচনা থেকে পরিচালিত হয়ে আসছে একজন পুরুষমহিলাকে কেন্দ্র করে আমাদের এই বিশ্বে সাধারনত এটাই নিয়ম এবং এটাই বৈধতাতবে যদি আপনি শোনেন কোথাও মেয়েদের সাথে মেয়েদের বিয়ে হয় তাহলে কি অবাক হবেন? আপনি অবাক হোন আর নাই হোন বিষয়টা কিন্তু সত্যিএকটি মেয়ে বিয়ে করছে অন্য আরেক মেয়েকেবিষয়টা অবিশ্বাস্য ও অবৈধ মনে হতে পারে আপনার কাছেকিন্তু সত্যি বিশ্বে এমন কিছু জায়গা আছে যেখানে এটা বৈধ এবং এটাই স্বাভাবিক| আজকের পর্বে আমি আপনাদের জানাবো সেই বিচিত্র দেশের কাহিনী এবং বিচিত্র বিয়ের নিয়ম কানুন। 

মেয়েতে মেয়েতে বিয়ের বিচিত্র এই নিয়মটি রয়েছে আফ্রিকার দেশ তানজানিয়াতানজানিয়ার একটি উপজাতির নাম কুরিয়া এবং এই  উপজাতির ঐতিহ্য হলো মেয়েতে মেয়েতে বিয়ে করা। বিচিত্র এই বিয়ের ঘটনা জানার আগে চলুন আমরা তানজানিয়া ও কুরিয়া উপজাতি সম্পর্কে ছোট্ট করে জেনে আসি।

তানজানিয়া ভারত মহাসাগরের তীরে অবস্থিত পূর্ব আফ্রিকার একটি প্রজাতন্ত্র। জাতিগত বৈচিত্র্যে সমৃদ্ধ এই দেশটিতে প্রায় ১০০টির মতো ভিন্ন ভাষা প্রচলিত আছে। ১৯৬৪ সালে তাঙ্গানিকা ও জাঞ্জিবার দেশ দুইটির একটি মিলিত ফেডারেশন হিসেবে তানজানিয়া প্রতিষ্ঠা করা হয়। তানজানিয়ার উত্তরে কেনিয়া উগান্ডা, পূর্বে ভারত মহাসাগর, দক্ষিণে মোজাম্বিক, জাম্বিয়া এবং পশ্চিমে গণতান্ত্রিক কঙ্গো প্রজাতন্ত্র, বুরুন্ডি রুয়ান্ডা অবস্থিত তানজানিয়ার মোট আয়তন ৯৪৫,১০০ বর্গকিলোমিটার দারুস সালাম তানজানিয়ার বৃহত্তম শহর প্রশাসনিক রাজধানী খ্রিষ্টান অধ্যুষিত দেশটির মোট জনসংখ্যা প্রায় ৫ কোটি, যার মধ্যে খ্রিষ্টান শতকরা ৬২ জন এবং মুসলিম শতকরা ৩৫ জন।

তানজানিয়ায় অনেকগুলো উপজাতির বসবাস রয়েছে, এর মধ্যে কুরিয়া উপজাতি অন্যতম। এই উপজাতির মানুষেরা দলবদ্ধভাবে বসবাস করে এবং তাদের দলগুলো বানতু নামে পরিচিত। এরা শুধুমাত্র তানজানিয়ায় বসবাস করে না, এদের বসবাসের পরিধি তানজানিয়া থেকে কেনিয়া পর্যন্ত বিস্তৃত হয়ে আছে। কুরিয়া উপজাতিদের প্রাচীন বা আদি বাসস্থান ছিল কেনিয়ার মিগোরি নদীর ধারে এবং তাদের বড় একটি অংশ উত্তরে লেক ভিক্টোরিয়া পর্যন্দ ছড়িয়ে ছিটিয়ে ছিল। ধর্মীয় দিক দিয়ে কুরিয়া উপজাতিদের অনেকে খ্রিষ্ঠান ধর্ম বিশ্বাস করলেও বেশির ভাগ মানুষ প্রাকৃতিক ধর্মে বিশ্বাসী। কুরিয়া উপজাতির মানুষেরা কয়েকটি গোত্রে বিভক্ত, যার মধ্যে ১৩টি গোত্র তানজানিয়াতে এবং ৪টি গোত্র কেনিয়াতে বাস করে।

তানজানিয়ার অনেক গোত্র শিকারির সাথে সংযুক্ত থাকলেও এই উপজাতির মানুষেরা কৃষি কাজের উপর নির্ভরশীল। তারা ভুট্টা, মটরশুটি এবং কাসাভা চাষ করে থাকে এবং তারা এই শষ্য বিক্রয় করে তাদের জীবিকা নির্বাহ করে। জনসংখ্যার দিক দিয়ে এই উপজাতীরা অনেক বেশি সংখ্যাগরিষ্ট। কেনিয়ায় বসবাসকারী তাদের মোট জনসংখ্যা ৩ লক্ষ ১ হাজার এবং তানজানিয়াতে জনসংখ্যা ৬ লক্ষ্য ১০ হাজার।

এই উপজাতীর মানুষের সমাজবদ্ধভাবে বসবাস করে এবং বিয়ে তাদের কাছে অন্যতম একটি সামাজিক অনুষ্ঠান। তানজানিয়াতে নারী সাথে নারী বা পুরুষের সাথে পুরুষের মধ্যে বিবাহ নিষিদ্ধ। সাধারণত কুরিয়া উপজাতীতেও নারী ও পুরুষের মধ্যে বিবাহ হয়ে থাকে। তবে সেখানে এক  মহিলার সাথে অন্য মহিলার মধ্যেও এক ধরনের বিবাহের প্রচলন রয়েছে। এই ধরনের বিয়ে আসলে তাদের মধ্যে বংশ পরম্পরা এবং আদিকাল থেকে চলে আসছে। কোনও নারী বিবাহ করার পর যদি বিধবা হয়ে যায় কিংবা যদি কোনও বয়স্ক অবিবাহিতা মহিলা থাকে তবে সেই মহিলা একজন যুবতী কন্যাকে বিবাহ করতে পারে। এই ধরনের বিবাহের বৈধতা দেয়া আছে তাদের সমাজে।

সাধারণত বয়স্ক মহিলারা তাদের প্রয়োজনে বিয়ে করে থাকেন তরুণীদেরবৃদ্ধ বয়েসে তাদের দেখাশুনা এবং তাদের পরিবারের সম্পত্তি দেখাশুনা করার জন্যই মূলত এই বয়স্ক মহিলারা অন্য মহিলাকে বিয়ে করে থাকে। কুরিয়া উপজাতীর বাইরে তানজানিয়া বা কেনিয়ার আর কোথাও এই প্রথা এখন আর প্রচলিত না থাকলেও এই উপজাতির মধ্যে এই বিবাহ প্রথা বহু বছর ধরে প্রচলিত আছে। সাধারণত বয়স্ক নারীরা যে যুবতী কন্যাদের বিবাহ করে তারা পরে আর কোনও পুরুষকে বিবাহ করতে পারে না, কিন্তু বয়স বেড়ে গেলে তারাও অণ্য কোনও যুবতী কন্যাকে বিবাহ করতে পারে।


আফ্রিকার অনেক জায়গাতেই এক সময় এই ধরনের বিচিত্র বিয়ের প্রচলন ছিলকিন্তু ধীরে ধীরে সেটা কমে এসেছেতবে বর্তমানে নাইজেরিয়ার দক্ষিন-পূর্বের কিছু জায়গাতেও এখনও এই ধরনের বিয়ে প্রথা প্রচলিত আছে


1 টি মন্তব্য:

  1. >>> Asole asob biye porisalito hoy tader sompotti rokkar jonno...kintu jodi jei meye k biye korlo sei meye jodi raji na hoy.tobe tar upor nirjatoon kora hoy..sotoran..e biyer konoeeee bitti nai !

    উত্তরমুছুন

Blogger দ্বারা পরিচালিত.